Blog

ড. নূহ-উল-আলম লেনিন ভাইয়ের ৭৫তম জন্মবর্ষ পূর্তি, ৭৬তম জন্মদিন 20 Apr

ড. নূহ-উল-আলম লেনিন ভাইয়ের ৭৫তম জন্মবর্ষ পূর্তি, ৭৬তম জন্মদিন

১৭ এপ্রিল ২০২২, ছিল দেশের স্বনামধন্য সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ড. নূহ উল আলম লেনিনের ৭৬তম জন্মদিন। গত দুই বছর করোনা পরিস্থিতিতে তাঁর স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তার কারণে তাঁকে সরাসরি জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো সম্ভব হয়নি। এবার সেটি সম্ভব হল। গতকাল সন্ধ্যায় অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের আমরা কয়েকজন সদস্য তাঁর কলাবাগানের বাসভবনে গিয়েছিলাম শুভেচ্ছা জানাতে। আমাদের মধ্যে ছিলেন ডা. মালেক ভূঁইয়া, অধ্যাপক মো, শাহজাহান মিয়া, নাছির উদ্দীন জুয়েল, কবীর ভূঁইয়া কেনেডি, আবু হানিফ ও শামীমা নাসরীন। জন্মদিনের সন্ধ্যায় একটি অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে আমরা খানিকটা সময় আমাদের পরম প্রিয়জন নূহ উল আলম লেনিনের সাহচর্য এবং তাঁর পরিবারের সান্নিধ্য লাভ করে আনন্দিত ও সমৃদ্ধ হয়েছি।

 

ঐদিন সকালে অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশন লৌহজং কেন্দ্রর সহ-সভাপতি সবজল সিকদার ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ এর নেতৃত্বে লেনিন ভাই এর দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্যে কামনা করে দিবসের প্রথম ভাগে তাঁর গৃহে সশরীরে উপস্থিত হয়ে শুভেচ্ছা জানায়। উপস্থিত ছিল নাসিম আলম কাজল, মিজানুর রহমান উজ্জ্বল, মনজুরুল হাসান শাহীন।

শারীরিকভাবে মোটেই সুস্থ নন নূহ উল আলম লেনিন। কিডনি সমস্যার জন্য তাঁকে সপ্তাহে তিনদিন ডাইলিসিস করাতে হয়। অন্য কেউ হলে সপ্তাহব্যাপী এই ধকল সহ্য করে কথা বলার অবস্থায় থাকতেন না। কিন্তু এই মানুষটি অসীম প্রাণশক্তি ও মনশক্তির অধিকারী। একাত্তরের বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক তিনি চেতনায় ধারণ করেন অপরিসীম দেশপ্রেম আর স্বাজাত্যবোধ। এই বোধ তাঁকে শক্তি যোগায়। অত্যন্ত সাদামাটা সহজ সরল জীবন তিনি যাপন করেন। ক্ষমতা আর অর্থের লোভ তাঁকে কখনও বশ করতে পারেনি। সততা আর ন্যায়বোধ সবসময়ই তাঁর জীবনচর্যায় প্রকাশিত থেকেছে। কৈশোর থেকে আজ পর্যন্ত তিনি ব্যস্ত থেকেছেন দেশ সমাজ আর মানুষের কাজে। গড়েছেন অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের মত বিশাল সংগঠন, যে সংগঠন বিক্রমপুরের প্রত্নরাজ্য আবিষ্কারে কাজ কে চলছে অবিরাম, উদ্ধার করেছে নাটেশ্বর ও রঘুরামপুর বৌদ্ধ বিহার, স্থাপন করেছে বিক্রমপুর জাদুঘর, বঙ্গীয় গ্রন্থ জাদুঘর, জ্ঞানপীঠ ও স্বদেশ গবেষণা কেন্দ্রসহ বহু সমাজ উন্নয়নমূলক প্রতিষ্ঠান, জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত তিনি ব্যয় করেন কাজের চিন্তায়, মহৎ ভাবনায়। পাশাপাশি তিনি একজন লেখক, গবেষক, কবি। বিষয়ভিত্তিক জার্নাল পথরেখা ও আওয়ামী লীগের মুখপত্র উত্তরণের সম্পাদক। তাঁর কর্মপরিধি নির্ণয় করা কঠিন। নিরন্তর কর্মব্রতী, সমাজসেবক, সাহিত্যের মনন ও সৃজনের মেলবন্ধনের একনিষ্ঠ সাধক ড. নূহ উল আলম লেনিনের সঠিক মূল্যায়ন নিশ্চয়ই কালের পৃষ্ঠায় একদিন লিপিবদ্ধ হবে। আমাদের ক্ষুদ্র প্রয়াসে তা কখনোই সম্ভব নয়। আমরা তাঁর জন্মদিনে জানাতে পারি অশেষ শুভেচ্ছা। তিনি দীর্ঘায়ু হোন। তাঁকে দিয়ে সাধিত হোক দেশ ও দশের আরও বহুবিধ কল্যাণ। শুভ জন্মদিন!

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *