Blog

বিক্রমপুর জাদুঘরের পান্থশালা বা গেস্ট হাউসের শুভ উদ্বোধন 24 Apr

বিক্রমপুর জাদুঘরের পান্থশালা বা গেস্ট হাউসের শুভ উদ্বোধন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

তারিখ : ১২জানুয়ারি ২০১৯।

বিক্রমপুর জাদুঘরের পান্থশালা বা গেস্ট হাউসের শুভ উদ্বোধন                         

১১ জানুয়ারি (শুক্রবার) ২০১৯ অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মুন্সিগঞ্জের  শ্রীনগর উপজেলার বালাশুর এ বিখ্যাত জমিদার যদুনাথ রায়ের বাড়িতে  বর্তমান বিক্রমপুর জাদুঘরে এ পান্থশালা বা গেস্ট হাউসের ত্রিতল ভবন শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সহচর,প্রধান সিকিউরিটি কর্মকর্তা,মুন্সিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ মহিউদ্দিন। তিনি অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের ভূয়সী প্রসংশা করেন। তাদের কর্মকাণ্ডের পাশে থাকবেন বলে ঘোষণা দেন। অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের সভাপতি, আওয়ামী লীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য, লেখক ড.নূহ-উল আলম লেনিন এর সভাপতিত্বে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাদুঘরের কিউরেটর অধ্যাপক শাহজাহান মিয়া।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব দুলাল কৃষ্ণ সাহা, অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি বিশিষ্ট ডাঃ আব্দুল মালেক ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, বিশিষ্ট প্রত্নতাত্ত্বিক অধ্যাপক ড.সুফি মোস্তাফিজুর রহমান, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সামসুল আলম  সবজল, অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের ইঞ্জিনিয়ার ঢালী আব্দুল জলিল, সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের  নারী ও শিশু বিষয়ক সম্পাদক হেলেনা ইয়াসমিন, জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অজয় চক্রবর্তী, পান্থশালা উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব মোঃ হানিফ বেপারী, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান জিঠু প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশনের শ্রীনগর শাখার সাধারণ সম্পাদক লেখক মুজিব রহমান।

বিক্রমপুরের অতীত ঐতিহ্যকে নবপ্রজন্মের কাছে তুলে ধরার, গৌরব পুনরুদ্ধার ও আলোকোজ্জ্বল ভবিষ্যৎ বিনির্মাণের জন্য ১৯৯৮ সালে অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশন স্থাপন করা হয়। মুন্সিগঞ্জ শহরে জ্ঞানপীঠ গবেষণা কেন্দ্র, কনকসারে বঙ্গীয় গ্রন্থ জাদুঘর, বালাশুরে বিক্রমপুর জাদুঘর স্থাপন করেছেন। টংগীবাড়ি উপজেলার নাটেশ্বরে একটি পাল আমলের বৌদ্ধ মন্দির এবং রঘুরামপুরে একটি বৌদ্ধ বিহার উৎখনন করে জাদুঘর নির্মাণ করেছেন। বিক্রমপুর জাদুঘরটি ২০১০ সালে তৎকালীন স্থানীয় সরকার বিষয়ক মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এটির নির্মাণ শেষ হলে ২০১৩ সালের ২৮ মে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন।  জাদুঘরের দ্বারোদঘাটন করেন ২০১৪ সালের ২০ জুন তৎকালীন সাংস্কৃতিক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর।

বিগত ২৮ মে ২০১৩ তারিখে জাদুঘর উদ্বোধনের সাথে এই  পান্থশালা বা গেস্ট হাউসের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঠিকাদারের গাফলতির কারনে নির্মাণ কাজ শেষ করতে দীর্ঘদিন সময় অতিবাহিত করে।

ধন্যবাদান্তে

(নাছির উদ্দিন আহমেদ)

দপ্তর সম্পাদক (কেন্দ্রীয় পর্ষদ)

অগ্রসর বিক্রমপুর ফাউন্ডেশন

(e-mail ID.  nasirjewel64@gmail.com)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *